বিবাহবিচ্ছেদ তাঁর স্ট্যান্ডার্ড মোটেও নিচে নামায় না : শবনম ফারিয়া

নাট্যাঙ্গনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। অভিনয় যোগ্যতায় নিজের অবস্থান ইতিমধ্যে তৈরী করে নিয়েছেন মিডিয়া জগতে জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। অভিনয়ের পাশাপাশি ব্যক্তিগত জীবনের বিভিন্ন ঘটনার মাধ্যমে প্রায় আলোচনায় এসে থাকেন তিনি। সম্প্রতি তিনি আবারও বিয়ের করায় ঘটনাটি নিয়ে বেশ আলোচনায় ছিলেন তিনি। তালাকপ্রাপ্ত নারী সংখ্যার বিষয় নিয়ে মন্তব্য করে যে কথা জানালেন শবনম ফারিয়া।

তালাকপ্রাপ্তা নারী মা/নেই ‘‘এভেইলেবল’ না বলে মন্তব্য করেছেন অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। বুধবার এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে এই মন্তব্য করেন ‘দেবী’ অভিনেত্রী।

শবনম ফারিয়া বলেন, “আমাদের আশেপাশের কিছু মানুষ মনে করেন, কারো ডিভোর্স হলেই তা/রা এভেইলেবল।”না বন্ধু, বি/বাহবিচ্ছেদ তাঁর স্ট্যান্ডার্ড মো/টেও নিচে না/মায় না।

শবনম ফারিয়া মনে করেন, বিবাহবিচ্ছেদ খুবই স্বাভাবিক প্রক্রিয়া, এটা কোনো মেয়ের ক্ষেত্রে হলে সে তার যোগ্যতা অনুযায়ী একজন সঙ্গী খুঁজে পেতে পারে। তার বক্তব্যকে অনেক ভক্তরা স্বাগত জানিয়েছেন।

ফারিয়া বলেন, “এমনকি তালাক হয়ে গেলেও সে তাঁর স্ট্যান্ডার্ড এমন কাউকে খুঁজে পেতে পারে।” একজন যোগ্য মানুষ খুঁজে পেতে পারে যে তার পাশে দাঁড়াবে। যোগ্যতা মানে শিক্ষা, পারিবারিক প্রেক্ষাপট, আয়, চেহারা, উচ্চতা সবকিছু। তাই কাউকে ভুল ভাইব দেওয়ার আগে সাবধান হন।

শবনম ফারিয়া ১৯৯০ সালের ৬ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি থেকে ইংরেজিতে স্নাতক সম্পন্ন করেন। তার পৈতৃক নিবাস চাঁদপুর। টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে কাজের মাধ্যমে মিডিয়া জগতে প্রবেশ করেন ফারিয়া। এরপর ২০১৩ সালে অল টাইম দৌ/ড়ের উপর নাটকে অভিনয়ে অভিষেক হয়।

তিনি ২০১৮ সালে দেবী চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন, যার জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর জন্য বাচসাস পুরস্কার এবং শ্রেষ্ঠ নবাগত অভিনেত্রীর জন্য মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার জিতেছিলেন।

প্রসঙ্গত, নারীরা তালাকপ্রাপ্ত হলে যে কেউ আর নতুন সঙ্গী খুঁজে নিতে পারবে না এমন নয় মন্তব্য করেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। তিনি বলেন, আমাদের সমাজ ব্যবস্থায় অনেক মনে করেন তালাকপ্রাপ্ত নারী সচার আচার পাওয়া যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *