ফের সামন্থার পাশে নাগা, নতুন গুঞ্জন তবে কি এক হবে তারা

ভারতের দক্ষিণী সিনেমার আলোচিত অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু। অভিনয় গুণে দক্ষিণী সিনেমার ছাড়িয়ে বলিউডেও তিনি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। একের পর এক সিনেমায় সাফল্যের মাধ্যমে ক্যারিয়ারের শীর্ষ সময় পার করছেন তিনি। তবে ব্যক্তিগত জীবনে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর থেকে মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েন তিনি। আলোচিত অভিনেত্রী বিরল এক রোগে ভুগছেন প্রকাশ হওয়ার তার পাশে অনেক তারকারা দাঁড়িয়েছেন তাদের সাথে এবার যোগ হলেন সাবেক স্বামী নাগা চৈতন্য।

দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু বিরল রোগে ভুগছেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের শারীরিক অবস্থার কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী। তিনি মায়োসাইটিস নামক বিরল রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

এক সময়, সামান্থা রুথ প্রভু-নাগা চৈতন্য ছিলেন দক্ষিণী শিল্পের অন্যতম আদর্শ দম্পতি। তবে গত বছরের অক্টোবরে সবাইকে অবাক করে ডিভোর্সের ঘোষণা দেন তারা। তারা তাদের চার বছরের দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটিয়ে তাদের আলাদা পথে চলতে থাকেন। এরপর দীর্ঘদিন ধরেই বিষণ্নতায় ভুগছিলেন সামান্থা।

ইন্ডাস্ট্রির সামান্থার বন্ধুরা তার অবস্থা জেনে তার পাশে দাঁড়িয়েছেন। নাগার সৎ ভাই আক্কিনেনি প্রকাশ্যে সামান্থার মঙ্গল কামনা করেছেন। তখন থেকেই জল্পনা চলছিল নাগা-সামান্থার বরফ জমাট স/ম্পর্ক কি এখন গলবে?

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সামান্থার স্বাস্থ্য নিয়ে বেশ চিন্তিত নাগা। নাগা তার প্রাক্তন স্ত্রীর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানতে ফোন করেছিলেন। নার্গাজুনের ছেলেও খুব তাড়াতাড়ি স্যামের সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে।

ভক্তরা চান নাগা এই কঠিন সময়ে সামান্থার পাশে থাকুক। প্রেমের সম্পর্ক জো/ড়া না লাগলেও অন্তত দুজনের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্কটা যেন অটুট থাকে সেটাই চায় তারা।

মায়োসাইটিস কি?

এই অটোইমিউন রোগটি পেশীগুলির আস্তরণের কোষগুলির প্রদাহ সৃষ্টি করে। এটি ঘাড় শক্ত হওয়া এবং ব্যথা, পিঠের নিচের ব্যথা এবং হাঁটুতে ব্যথা বাড়ায়। রোগীর হাঁটাচলা, ক্লান্তি এমনকি শ্বাসকষ্টও হয়।

২৯ অক্টোবর, সামান্থা অসুস্থতা সম্পর্কে ইনস্টাগ্রামে লিখেন – কয়েক মাস আগে আমি মায়োসাইটিস নামক একটি অটোইমিউন রোগে আক্রান্ত। আমি ভেবেছিলাম সমস্যাটি কিছুটা কম হলে আমি তোমাদের জানাব, কিন্তু এটি একটু বেশি সময় নিচ্ছে।

এর পরে, সামান্থা যোগ করেন, ‘আমি মনে করি নিজেকে সবসময় শক্তিশালী হিসাবে তুলে ধ/রার দরকার নেই। আমার দুর্বলতা স্বীকার করা এমন কিছু যা আমি এখনও সংগ্রাম করি। খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠতে পারব বলে আশাবাদী চিকিৎসকরা। আমার ভাল দিন যাচ্ছে, খারাপ দিন যাচ্ছে — শারীরিক এবং মানসিকভাবে। মাঝে মাঝে মনে হয় আমি আর একটি দিনও সহ্য করতে পা/রব না। যখন আমি সেই মুহূর্তটি অতিক্রম করতে দেখি, আমার মন বলে – আমি সুস্থতার পথে একটু এগিয়ে আছি। সবাইকে অনেক অনেক ভালোবাসা।

প্রসঙ্গত, এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে বেশ ভেঙ্গে পড়েছে আলোচিত সামান্থা রুথ প্রভু। তার এই পরিস্থিতিতে পাশে দাঁড়াবেন নাগা চৈতন্য এমনটাই প্রত্যাশা প্রকাশ করেন তার ভক্ত ও দর্শকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *