এবার সোনিয়া আক্তার স্মৃতিকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করার অপরাধে রাজবাড়ী জেলার মহিলা দলের নেত্রী সোনিয়া আক্তার স্মৃতিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পর থেকে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়। তাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ করে বিরোধী দল বিএনপি। পরে তার জামিনের আবেদন করা হলে মঞ্জুর না করে কারাগারে পাঠানো হয়। নিম্ন আদালতে জামিন না মঞ্জুর করায় উচ্চ আদালতে আবেদন করেন স্মৃতির আইনজীবি এবং উচ্চ আদালত তার জামিন মঞ্জুর করে।

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তি করার মামলায় রাজবাড়ী জেলা মহিলা দলের সদস্য সোনিয়া আক্তার স্মৃতিকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার (২ নভেম্বর) চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম বিষয়টি নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য আগামী সোমবার পর্যন্ত মুলতবি করেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ। স্মৃতির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী ও ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

এর আগে গত সোমবার আকরাম হোসেন চৌধুরী ও বিচারপতি শাহেদ নূরউদ্দিনের হাইকোর্ট বেঞ্চ তাকে জামিন দেন বিচারপতি।

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করার অভিযোগে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলাটি করেন জেলা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সদস্য সচিব এবং মিজানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আরিফিন চৌধুরী।

ওই মামলায় সোনিয়া আক্তার স্মৃতিকে ৪ অক্টোবর দিবাগত রাত দেড়টার দিকে রাজবাড়ী শহরের তিন নম্বর সাজনকান্দা, বেরাডাঙ্গা সড়কের ভাড়া বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

রাজবাড়ী ব্লাড ডোনারস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও জেলা মহিলা দলের সদস্য সোনিয়া আক্তার স্মৃতি। তিনি রাজবাড়ী পৌরসভার ৩নং বেরাডাঙ্গা এলাকার প্র/বাসি খোকনের স্ত্রী।

প্রসঙ্গত, উচ্চ আদালত তার জামিন মঞ্জর করলে রাষ্টপক্ষের আবেদনে তা স্থিগিত করেছে আপিল বিভাগ। বিষয়টি নিয়ে আসামির পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *