বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আবারও মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে চলেছে। ইতিমধ্যে কয়েকটি দেশ ফের লকডাউন ঘোষণা করেছে। আর সামনের দিনে বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতে পারে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। করোনা ভইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার সকল রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেছে। তবে যে সকল ব্যক্তিরা বিদেশ থেকে দেশে ফিরছেন তাদের প্রতি বিশেষ নজর রাখতে বলছেন বিশেষজ্ঞরা। আর এই বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকেও কঠোর সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে।

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ধা/ক্কা ঠেকাতে বিদেশ ফেরতদের মধ্যে সন্দেহভাজন করোনা সংক্রমিতদের কঠোর কোয়ারেন্টিনে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।
রোববার (১ নভেম্বর) করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে করণীয় নির্ধারণে আন্তঃমন্ত্রণালয় ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয় বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।
বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার জানান, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে বিদেশ ফেরতদের মধ্যে সন্দেহভাজন করোনা সংক্রমিতদের কোয়ারেন্টিন কঠোর করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
এছাড়া করোনা ঠেকাতে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের নেতৃত্বে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে ৫ সদস্যের কমিটি গঠিত হয়েছে।
জানা গেছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের নেতৃত্বে বৈঠকে অংশ নেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, সাস্থ্য সচিব আব্দুল মান্নান ও সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিরা।

উল্লেখ্য, এর আগে যখন দেশে প্রথম করোনা ভাইরাস দেখা দেয় তকন অনেক বিদেশ ফেরত মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এসেছে। আর তাদের মাধ্যমে অন্যরাও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। যার কারণে দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি প্বয়েছিল মনে করেন অনেকে। আর এই কারণে এবার করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে বিদেশ ফেরতদের প্রতি কঠোর সিদ্ধান্তের কথা বলা হয়েছে।