রংপুর-৩ (সদর আসন) উপ-নির্বাচনে বিএনপি থেকে মনোনীত হয়েছেন রিটা রহমান। বিএনপির এই প্রার্থী অভিযোগ করে বলেন এখানকার নির্বাচনের মাঠ সুষ্ঠু নয়। নির্বাচনের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা পক্ষপাতিত্ব করছেন বলে তিনি দাবি করেন।
আজ শনিবার (৫ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে এই নির্বাচনী এলাকার কেন্দ্রগুলোতে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। তখন তিনি ভোটের পরিবেশ দেখার জন্য কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে দেখার পর ১০টার দিকে তিনি রংপুর নগরের বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে তিনি একটি গনমাধ্যমকে তার অভিযোগ ব্যক্ত করেন।

রিটা রহমান বলেন, গতকাল (শুক্রবার, ৪ অক্টোবর) রাতে বিভিন্ন জায়গায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে প্রশাসন। ভোটের বিভিন্ন সরঞ্জামাদি নিয়ে গেছে। ভোরে আবার আমরা সেগুলো পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে রাতে মোবাইলে ও সকালে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা দেশের অন্যতম বৃহৎ একটি দল। আমরা বারবার অনুরোধ করেছিলাম যে ভোটের মাঠ সুষ্ঠু রাখেন। নিরপেক্ষ আচরণ করেন। কিন্তু তারা ’পক্ষপাতিত্ব’ করছেন। ভোটের মাঠ সবার জন্য সমান করতে নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ।

তাকে ভোটার উপস্থিতি প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, চলমান নির্বাচন এবং ইভিএম পদ্ধতিতে যে ভোটগ্রহন চলছে এ নিয়ে মানুষ অনেক আশাহত। তাই গনমানুষের এই নির্বাচনে সম্পৃক্ততার আগ্রহ দেখছি না। তারা নির্বাচনের পরিবেশ সুষ্ঠু হবে না এটা জেনেই ভোট দিতে আসছে না বললেই চলে। যদি সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন হতো তাহলে তিনি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী থাকতেন বলে জানান।

সাইফুল ইসলাম যিনি রংপুর জেলা বিএনপির সভাপতি এবং শহিদুল ইসলাম মিজু যিনি মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ আরো বেশ কয়েকজন স্থানীয় নেতাকর্মী সেখানে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন।