গঙ্গা নদীর উপর ফারাক্কা বাঁধ অবস্থিত। শুকনো মৌসুমে এই ফারাক্কা বাঁধ আটকে দেয় ভারত। এতে করে বংলাদেশ নেজ্য পানি পায় না। ফারাক্কা বাঁধ দেয়ার কারণে বাংলাদেশের অনেক স্থান মরুভূমিতে পরিণত হচ্ছে এবং অনেক নদী নাব্যতা হারিয়ে ফেলেছে। তবে বর্ষা মৌসুমে অনেক সময় এই বাঁধ খুলে দেয় ভারত। এবার ফারাক্কা বাঁধ নিয়ে কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশকে বিপদে ফেলতে ভারত ইচ্ছে করে ফারাক্কা বাঁধ খুলে দেয়নি। তিনি আরও বলেন, কিছু গণমাধ্যমে সংবাদ বের হয়েছে, ভারত ফারাক্কা বাঁধ খুলে দিয়েছে, এটি সঠিক কথা নয়।
বুধবার (২ অক্টোবর) দুপুর পৌনে ১২টায় রাজধানীর হোটেল লেক ক্যাসেলে বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিউটের (বিইআই) উদ্যোগে ’সহিংসতা ও উগ্রবাদ প্রতিরোধে যুব সমাজের ভূমিকা: উত্তরবঙ্গ থেকে অভিজ্ঞতা’ শীর্ষক জাতীয় গোলটেবিল বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন আরও জানান, ভারত অনেকটা স্বাভাবিকভাবেই পানির বাঁধ খুলে দিয়েছে। এটা এখন নতুন কোনো বিষয় নয়। এমনিতেই এসময়ে ফারাক্কা বাঁধ খোলা থাকে।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফর নিয়ে গনমাধ্যমের করা এক প্রশ্নের জবাবে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ভারতের অবস্থান আপনারা জানেন এবং আমাদের অবস্থান কী তাও আপনারা জানেন। তাই বলতে চাই এ সফর ফলপ্রসূ হবে।

এই সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারাসহ আরও অনেকে।