বর্তমান বিশ্ব চীনের করোনা ভাইরাস নিয়ে ব্যাপক ভাবে চিন্তিত। এদিকে, গত রবিবার বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। এরপর থেকে বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে সচেতনতার প্রবণতা বেড়ে গেছে। তবে এই কারণে বাজারে স্যানিটাইজার, মাস্ক এর বিক্রয় বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিকে, অনেক মানুষ এই সকল জিনিসপত্র অনেক বেশি ক্রয় করছেন। এবার এই বিষয়ে কথা বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।
তিনি লেখেন, আমার এক পরিচিত ’স্বপ্ন’ সুপার মার্কেটে গিয়েছিলো। হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনতে। কিন্তু পায়নি। সকালের দিকে একজন এসে একা সব স্যানিটাজার কিনে নিয়ে গেছে। একা সব কেনার সামর্থ্য অনেকের থাকতে পারে, আপনারও থাকতে পারে। কিন্তু কখনো তা করবেন না। কারণ অন্যেরও আছে বাঁচার অধিকার, নিরাপদ অনুভব করার অধিকার। আর আপনি একা সব কিনে ফেললে অন্যরা আক্রান্ত হলে আপনি বাঁচবেন কিভাবে?

কাজেই উন্মাদ বা স্বার্থপরের মতো হবেন না।
বিপদের সময় বোঝা যায় মানুষের মনুষ্যত্ব। বাজারে ঘনঘন না যেতে চাইলে সামান্য বেশী কিনে রাখুন। কিন্তু হামলে পড়ে সবকিছু না। সব কিনে জমিয়ে রাখলে আপনি মানুষ না, অমানুষ!

গরমের প্রকোপ শুরু হবে একমাসের মধ্যে।ইনশাআল্লাহ করোনার প্রকোপ এমনিই কমে যাবে দেশে। ভয় নয়, চাই সতর্কতা।


উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাস এরই মধ্যে বিশ্বের ১০৮ টির অধিক দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এদিকে, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত তিনজন ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস দেখা দিয়েছে। এদের মধ্যে দুইজন ইতালি থেকে এসেছেন। আর বাকি একজন তাদের পরিবারের সদস্য। এই সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে মাস্ক এর দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।