আমি একজন নারী হিসেবে দৃঢ়তা নিয়ে বলতে পারি এবং একই সাথে বিশ্বাসও করি, আমি যতটুকু সম্মান ও মর্যাদার অধিকারী তা শুধু আমার আকার, এই দুটো বিষয় যা নিয়ে আমার জীবন তা আমার অন্তর্বাস বা আমার ব্যক্তিগত দু-একটি ছবির ভিতরে সীমাবদ্ধ আছে বলে আমি বিশ্বাস করি না। আমি সহজে এই জিনিসগুলো পাইনি। এর জন্য জীবনে আমাকে অনেক কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে, সৃজনশীলতা ও শিক্ষার মত অত্যবশ্যকীয় বিষয়গুলো আমাকে অর্জন করতে হয়েছে। .. এটা আমার কথা নয় মিথিলার জীবন দর্শনের কথা এগুলো। এটা আমার ভালো করেই জানা, অনেকে লাফ দিয়ে উঠে বলে বসবেন আরে ঐ মাইয়া তো শুইয়া শুইয়া বড় হইছে। আর এখন দোষ করেও বড় বড় কথা বলে।
সবাই জেনে রাখেন প্রকাশ্য যে চেহারাটা , যে কাজটা আপনি দেখেন তা অন্য কেউ করে দেয় না। সেটা সেই মানুষটারই কৃতিত্ব। তবে তার মেধা দেখানোর সুযোগ করে দেয়ার নাম করে যে পুরুষ তাকে ব্যবহার করে তাকে থু থু দেন। কারণ যে কাজটা তার এমনিতেই করার কথা তা সে বিক্রি করেছে। মূল্য হিসাবে এমন কিছু নিচ্ছে যা সবচেয়ে দামী। সেই লম্পটটা যদি আপনার কাছে ভালো হয় , আপনি বুঝবেন আপনার মধ্যেও লাম্পট্যের বীজ আছে এবং আপনি নিজে লম্পট!!

মিথিলা ইংরেজীতে যে স্ট্যাটাস লিখেছে তা বোঝার ক্ষমতা বা শিক্ষা বেশীরভাগেরই নেই যারা তাকে খুলেছেন করছেন। যারা কথা বলছেন তারা হলফ করে বলতে পারবেন আপনার প্রেমের সময়টি এরচেয়ে কিছু কম অন্তরঙ্গ মূহূর্ত কাটিয়েছেন? আপনি আপনার ভালোবাসার মানুষটিকে চুমু খান না?!! মিথিলা ডিভোর্সী। তার প্রেমিক থাকতে পারে এবং তাকে তিনি বিয়েও করার পরিকল্পনা করে থাকতে পারেন। সেই সম্পর্ক ভেঙ্গে যেতেই পারে এবং তিনি সামনের দিকে এগোতে থাকতেই পারেন ।

.....এইগুলা সবার জীবনে ঘটে যাওয়া অতি সাধারণ ঘটনা। কিন্তু এই সাধারণ ঘটনা যারা অতি সতি সাধ্বী সাজার চেষ্টা করছেন তারা কি নিজেকে একবার আয়নায় দেখেন? মিথিলার সাথে যে পুরুষটি ...তার কোনো দোষ আপনি দেখছেন না কারণ আপনি মনে করেন পুরুষরা এমন করতে পারে । আপনি নারী আপনার স্বামীকে অন্য নারীর সাথে প্রেমরত অবস্থায় দেখেও সংসার ছাড়েন না । সুন্দর সুন্দর ছবি পোষ্ট করে সুখী সাজেন। কিন্তু আপনার স্ট্যাটাস সিন্বল স্বামী যার সাথে সম্পর্ক করলো তার জীবন নাশ করে ফেলেন । আপনি কি জানেন আপনার এই অবস্থান সেই পুরুষটিকে অন্য ১০ জন নারীর জীবন নষ্ট করার লাইসেন্স দিচ্ছে এবং সেই লাইসেন্স আপনার কাছ থেকেই সে পাচ্ছে। আপনার পুরুষটিকে বদলান নারীকে অসম্মান না করে।

কোন মেয়ে কার সাথে শুইলো তা নিয়ে জগত আন্ধার করে ফেলেন। আপনি দেখেন কি আপনারও একটা কন্যা সন্তান আছে? তার এমন ছবি ছড়ালে আপনার কেমন লাগবে?

নিজে সফল না হতে পারলে অন্যের সফলতা শুয়ে কামানো যারা ভাবেন । তারা দয়া করে একবার ভাবেন নিজের কিছু না থাকলে কারো শোয়ার সঙ্গীও হওয়া যায় না। মেয়েটির শোয়ার জন্য একজন পুরুষ লাগে । সেই পুরুষ আপনারই স্বামী, বন্ধু বা ভাই। ঐ মেয়েটির চেয়ে নষ্ট তারা শতগুন।

ঘটনাটায় তারা দু’জনেই ছিল, কিন্তু আমি মনে করি ফাহমিকে এই বিষয়টির জন্য পুরোটাই দোষী। লোকটিকে আমি আপাদমস্তক লম্পট মনে করি। শুনেছি তার ভাইরাল হওয়া ফেইসবুক আইডিটি কেউ হ্যাক করেছে কিন্ত আশ্চর্য্যের বিষয় তিনি থানায় কোনো কমপ্লেইন ই করেননি। ঘটনাটির পর মিথিলা যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে তার সামান্যতম অংশ ফাহমি দেখায়নি যা তার দেখানো উচিৎ ছিলো আরো বেশী। আপনি কী শিওর সে নিজে লাইম লাইটে থাকতে এই ঘটনা ঘটায়নি? ওকে ধরে এনে যদি পাছায় কয়েকটা বাড়ি দেওয়া হয় তা হলে সব বেরিয়ে আসবে।

ভাইরে, সবশেষে এই কথাটাই বলতে চাই, সবারই নিজের ব্যক্তিগত একটি জীবন রয়েছে। যদি আপনার এই ধরনের কোনো ছবি নেটের বদলৌতে ছড়িয়ে পড়ে তাহলে আপনার কেমন লাগবে তা একটু ভাবুনতো, অন্তত: এটা ভেবে একটু সভ্য হোন। লোকে কি বলবে না বলবে সে ভয়টাকে দূরে রেখে আমরা দিন দিন অসভ্যতার দিকে ধাবিত হচ্ছি, সভ্যতা নিয়ে বেচে থাকা ভুলে যাচ্ছি। আপনারা যারা অন্যকে নিয়ে বুলি আওড়াতে ভালোবাসেন তাদেরকে বলছি, আপনারা অন্যর জীবনকে নিয়ে টানা হেচড়া বা নাক গলানো বন্ধ করেন। সবারই অধিকার আছে নিজের মতো করে বেঁচে থাকার।