জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ একজন সেরা শাসক ও জনদরদী হিসেবে মূল্যায়িত হতেন, ক্ষমতারোহনের পাপ না থাকলে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল একথা লিখেছেন তার ফেসবুক পেইজে। রোববার সকাল পৌনে ৮টায় ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এরশাদ।
পাঠকদের জন্য স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো-

এরশাদের জন্য শোক

প্রশাসক ও রাষ্ট্রচিন্তক হিসেবে তিনি অসাধারণ ছিলেন। বহু কল্যাণকর ও সুদূরপ্রসারী উন্নয়ন করেছেন (যেমন: প্রশাসন বিকেন্দ্রীকরণ, যোগাযাগ ব্যবস্থা উন্নয়ন, ওষুধনীতি)। বাংলাদেশের বেশির ভাগ শাসকদের চেয়ে তার আমলে খুন, দুর্নীতি ও জনভোগান্তি কম হয়েছে।বিচার বিভাগ, সংবাদমাধ্যম ও নাগরিক সমাজ তার আমলে বেশি স্বাধীনতা ভোগ করেছে।

ক্ষমতারোহনের পাপ না থাকলে একজন সেরা শাসক ও জনদরদী হিসেবে তিনি মূল্যায়িত হতেন। ক্ষমতারোহনের পাপ অবশ্য আগে পরে হয়েছে। কিন্তু গালিটা শুনতে হয় মূলত তাকে।

এরশাদের বিরুদ্ধে মিছিলে থেকেছি, তার বিরুদ্ধে লিখেছি, তার আমলে ছাত্র হত্যাকাণ্ডে প্রচণ্ড ক্ষুদ্ধ হয়েছি। তিনি জিয়া হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলেন-এটাও কখনো ক্ষমা করার মতো না।

’তবু তার মৃত্যুতে শোক। কারণ মৃত্যুতে শেষ হওয়া উচিত বহু ক্ষোভ আর রাগ। মৃত্যুতে অন্তত শুরু হওয়া উচিত ভালোকাজের নির্মোহ প্রশংসা।’