বর্তমান বিশ্বে এখন সব থেকে বড় ভয়ের নাম করোনা ভাইরাস। এই কারণে বিশ্বের প্রতিটা দেশর মানুষ অধিক সচেতন ভাবে চলাচল করছে। তবে এরপরও করোনা ভাইরাস ব্যাপক ভাবে ছড়িয়ে পড়ছে। একই সাথে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অনেক মানুষ প্রাণনাশ হচ্ছে এই করোনা ভাইরাসে। এবার যুক্তরাজ্যে আরও এক বাংলাদেশি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন।
গতকাল শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোরে রয়েল লন্ডন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ৬৬ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি।

জানা যায়, আট দিন আগে অসুস্থ হয়ে রয়েল লন্ডন হাসপাতালে ভর্তি হন আফরোজ মিয়া নামে ওই ব্যক্তি। সেখানে তার শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। হাসপাতালে এ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার পর সেখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

ওই বাংলাদেশিকে রয়েল লন্ডন হাসপাতালে রাখা হয়েছে। তাকে স্বজনদের কাছে কীভাবে, কখন হস্তান্তর করা হবে সে বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

ছয় মাস আগে বাংলাদেশ সফর করে যান ওই ব্যক্তি। তার গ্রামের বাড়ি সিলেটে। যুক্তরাজ্যের বাঙালি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই ডায়বেটিসসহ নানা শারীরিক অসুস্থ্যতায় ভুগছিলেন ওই ব্যক্তি।

উল্লেখ্য, গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত ব্রিটেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণনাশ হয়েছে মোট ১২ জন। এর মধ্যে দুজন বাংলাদেশি।

এর আগে গত রোববার ব্রিটেনে যে তৃতীয় ব্যক্তি করোনাভাইরাসে প্রাণ হারান,তিনি একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত। সংক্রমণ ধরা পড়ার মাত্র পাঁচ দিনের মাথায় ম্যানচেস্টারের এক হাসপাতালে ৬০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি কয়েক বছর আগে ইতালি থেকে ব্রিটেনে এসে স্থায়ীভাবে বসবাস করছিলেন।

এদিকে, চীনের করোনা ভাইরাস এরই মধ্যে বিশ্বের প্রায় ১১৪ টির অধিক দেশে ছড়িয়েছে। এ কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সকল রকম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছে। এদিকে, ইতালির অবস্থা অনেক খারাপ। করোনা ভাইরাসের কারণে দেশটির প্রায় ৬ কোটির অধিক মানুষ ঘরে আটকা রয়েছে।