সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন মধ্যপ্রাচ্যের চার দেশের অবরোধে থাকা কাতারে দুগ্ধজাত দ্রব্যের অভাব পূরণে জার্মানি থেকে উড়িয়ে আনা হয়েছে ১৭৫টি হোলস্টিন প্রজাতির গরু।

সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও জর্ডানের দেয়া অবরোধের পরেই ৪০০০ গবাদি পশু আমদানির সিদ্ধান্ত নেয় কাতার। সেই চুক্তির প্রথম ধাপে মঙ্গলবার ১৭৫টি গরু এসে পৌছায় কাতারে।

আকাশ, সড়ক ও নৌপথে অবরোধের কারণে টালমাটাল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় কাতারে। আমদানি নির্ভর অর্থনীতির দেশ কাতারের জনসংখ্যা ২৭ লাখ।

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর দেয়া শর্তে রাজি না হওয়ায় তারা কাতারের বিরুদ্ধে নতুন অবরোধের হুমকি দিয়েছে।

কাতার এয়ারওয়েজের কার্গো বিমানে করে গতকাল বুদাপেস্ট থেকে এসব গরু কাতারে আসে। নতুন একটি দুগ্ধ খামারে তাদের নেয়া হয়েছে বলে জানায় বিবিসি।

কাতারি ফার্ম পাওয়ার ইন্টারন্যাশনাল এই গরুগুলো কিনেছেন। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মওতাজ আল-খায়াত বলেন, সবগুলো গরু কাতারে এসে পৌছালে আমরা দেশটির ৩০ শতাংশ দুগ্ধজাত পণ্যের অভাব পূরণ করতে পারবো।

গত পাঁচ সপ্তাহ আগে সন্ত্রাসে মদতের অভিযোগে কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, বাহরাইন, মিশর ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। এই অবরোধের আগে পর্যন্ত কাতারের সিংহভাগ দুগ্ধজাত পণ্য সৌদি আরব থেকে আসতো। উপসাগরীয় দেশগুলোর অবরোধের পর দইসহ আরো কিছু দুগ্ধজাত পণ্য তুরস্ক, মরক্কো ও ইরান থেকে আমদানি করে কাতার।