বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী পড়শি। এই জনপ্রিয় জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ও সাধারণ মানুষের মতো চলাফেরা করেন। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে তিনি দীর্ঘদিন ধরে কোনো অনুষ্ঠানে যেতে পারছেন না। তবে এবার তার ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন। এমনকি তিনি তার অনেক গোপন কথাও প্রকাশ করেছেন। আর তার ইচ্ছার কথাও বলেছেন দেশের এই জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী।

আজ হাঁড়ির খবর বললেন পড়শি

আপনার সবচেয়ে বড় দূর্বলতা- যা দিয়ে বোকা বানানো যায়?
যে কোনো মানুষ চাইলেই খাওয়ার লোভ দেখিয়ে আমাকে বশ করতে পারে। ফুচকা আমার ভীষণ প্রিয়। করোনার কারণে অনেকদিন ফুচকা খেতে পারিনি। তাই মাকে বলেছি বিয়ে করব ফুচকাওয়ালাকে! যাতে ফুচকা খেতে সমস্যা না হয়।
যদি গান নিষিদ্ধ হয়ে যায়, তখন কী করবেন?
নিজে না গাইলেও অন্যকে উৎসাহ দেব আমার গান গাইতে। সে গান শুনেই এই দুঃখ কাটানোর চেষ্টা করব। আর গান না করলেও আরও অনেক পথই খোলা আছে। অভিনয় করতে পারব।
হঠাৎ ভূত দেখলে ভয় পাবেন?
অনেক দিনের ইচ্ছা ভূত দেখার। সে জন্য রাতের ৩টা অব্দি প্রায়ই বাসার ছাদে বসে থাকি। কিন্তু সে আসে না। মনে হয়, ভূত উল্টো আমায় ভয় পায়!
আপনার একটি গোপন কথা বলুন, যা কেউ জানে না।
পায়েস খেতে খুবই ভালো লাগে। আর সে কারণে বাসার ফ্রিজে সবসময় পায়েস থাকে। এছাড়াও আরও একটি বিষয় আছে। তা হলো আচার। যে কারণে আমার বাড়িতে সবসময় বিভিন্ন পদের আচারে ভর্তি থাকে।
সবচেয়ে আনন্দের দিন...
অনেক আছে। বললে সবাই বুঝে যাবে।

উল্লেখ্য, এই জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী একাধিক গানে তার মধুর কন্ঠস্বর দিয়েছেন। আর এই সকল গান গুলো দেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এছাড়া তিনি বিদেশে গিয়েও অনেক অনুষ্ঠানে গান গেয়েছেন। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে অন্য সকলের মতো তিনি দীর্ঘদিন ধরে ঘরে রয়েছেন।