গত মাস দেশের ছোট পর্দার পরিচিত মুখ অ্যানি খান সকল প্রকার অভিনয় আর না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এর আগে করোনা ভাইরাসের কারণে তিনি দীর্ঘ দিন ঘরবন্দি ছিলেন। এই সময় তিনি ধর্মীয় নিয়ম-কানুন সঠিকভাবে পালন করার চেষ্টা করেন। আর একটা সময় তার উপলব্ধি হয় মিডিয়া জগতে তার কাজ করা ঠিক হচ্ছে না। আর এই সময় তিনি অনেক ধর্মিও লেকাচার শুনেছেন আর সেই অনুযায়ী চলার চেষ্টা করছেন। আর এবার তেমনি একটি লেকাচার নিয়ে কথা বলেছেন তিনি।

আলহামদুলিল্লাহ, এই লেকচার থেকে আমার কাজ ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া শুরু করেছিলাম। তারপর একে একে উনার অনেকগুলো লেকচার শুনি, যা ভালো লাগছে। এবং কাজ ছারতে একবার ও চিন্তা করি নাই, আল্লাহ মহান, আল্লাহ মহান, আল্লাহ মহান।
জানিনা ভাই উনি কোন দলের লোক? উনার লেকচার আমার ভালো লাগে, উনার কথা বলার স্টাইল আমার ভালো লাগে।
আল্লাহ সবাইকে ভালো রাখুন, না জানি এটা নিয়ে কত কন্ট্রোভার্সি হয়?
আমি কে কোন দলের সাথে দেখিনা, আমি যখন যে লেকচার টা শুনি, বা কোন হাদিস বা লেখা শেয়ার করি, তখন দেখি ওই কথাগুলো জীবনে মানলে কোন ক্ষতি আছে কিনা? নরমাল বিবেক বুদ্ধিটুকু আল্লাহ আমাদের দিয়ে দিয়েছেন।সেই বিবেকে যা ভাল লাগে তাই শেয়ার দেই। এগুলো শেয়ার দিয়ে তাদের জন্য যারা দল দেখেনা ভালো কথাগুলো শুনে, বিবেক বুদ্ধি দিয়ে তা জীবনের সাথে প্রয়োগ করে।
যারা অনেক বেশি জানেন, যারা কনফার্ম যে তারা জান্নাতে যাবেন, যারা বুঝেন যে মাযহাব, আকিদা এগুলো আপনাদের কে জান্নাতে নিয়ে যাবে তাদের জন্য এগুলো না।
আমি মাযহাব ও সম্মান করি, আকিদাকে ও সম্মান করি,কাওমি, তাবলীগ, আহলে হাদিস, আর যা যা আছে, সবাইকে সম্মান করি, কারণ আমি মুসলিম আমার দলটা সবচাইতে বড়। সূত্র:নায়া দিগন্ত

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন ধরে অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী ঘরবন্দি ছিলেন আর এই সময় অনেকে ধর্ম পালনে সব থেকে বেশি মনোযোগ দেন। ঠিক তেমনি অ্যানি খান ও এই সময় সব থেকে বেশি ধর্ম পালনের দিকে মনোযোগ দেন। আর একটা সময় তিনি সিদ্ধান্ত নেন আর অভিনয় করবেন না। আর এরপর থেকে তিনি ইসলামিক বিষয়ে অনেক তথ্য জানতেছেন।