করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বের সব দেশের মানুষের মধ্যে ব্যাপক ভীতিকর পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে। এদিকে বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাস দেখা দেয়ায় দেশের মানুষের মধ্যে ভীতিকর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে যারাই দেশে ফিরছেন তাদের মধ্যে অনেকেই সেচ্ছায় বাসায় বন্দি থাকছেন। এবার তেমনই বাংলাদেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসান খান নিজেকে বাসায় বন্দি রেখেছেন। এ বার এই বিষয়ে তিনি গনমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন।
’যখন আমার অস্ট্রেলিয়া ও আমেরিকার কনসার্টটি বাতিল হয়েছে, তখনই বুঝেছি সামনে আমাদের দেশেও সিচুয়েশন খারাপ হবে। এখন সব কাজ বন্ধ রেখে বাসায় বসে আছি। কোনও জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের হবো না।’
ফেসবুকের ইনবক্স আলোচনায় গণমাধ্যমকে এভাবেই নিজেকে বাসায় বন্দি রাখার কথাগুলো বললেন সংগীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসান খান।
এর আগে জাপান থেকে দেশে ফেরার পর গত ১৪ মার্চ ফেসবুকে এক পোস্টের মাধ্যমে তিনি লেখেন, ’প্রিয় প্রযোজক, পরিচালক ও কনসার্টের আয়োজক- আমি আমার সব কাজ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সামাজিক বিচ্ছিন্নকরণ হলো এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় সমাধান। আশাকরি, আপনারা বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।’
বলা যায়, এভাবেই তাহসান নিজ বাসায় স্বেচ্ছাবন্দি করেছেন নিজেকে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আজও (১৮ মার্চ) তার একটি নাটকের শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার কথা ছিল। আগামী সপ্তাহেও তার নাটকের কাজ ছিল। তবে পরিচালকদের তিনি নিজের অপারগতার কথা জানিয়ে দিলেন।
বললেন, ’এখন কাজের সময় নয়। নিজেদের বাঁচানোর সময়।’
এদিকে বিশ্বজুড়ে এমন পরিস্থিতি নিয়ে তাহসান আরও বলেন, ’এখন নিজেকে আলাদা করে রাখাটা আপনার-আমার সবার দায়িত্ব। একমাত্র এর মাধ্যমেই এই সঙ্কট মোকাবেলা করা সম্ভব।’
জানান, বাসায় এভাবে দিনের পর দিন সময় কাটানো তার জন্য কষ্টকর হয়ে উঠছে। তারপরও এভাবেই থাকতে চান।
জানালেন, বাসায় বসে অনলাইন, টিভি ও নিজের কাজের চর্চা করেই সময় কাটাচ্ছেন এই তারকা।
উল্লেখ্য, বাংলাদেশে এ পর্যন্ত দশজন ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া গেছে। এই দশজনের মধ্যে অধিকাংই বিদেশ থেকে এসেছেন। যার কারণে বিদেশ থেকে যারাই আসছেন তাদেরকে বাধ্যতামূলক বাসায় থাকতে বলা হয়েছে। একই সাথে তারা যেন অন্য মানুষের সংস্পর্শে না আসে সে বিষয়ে সকলকে অনুরধ করা হয়েছে।