বাংলাদেশের কন্ঠশিল্পীদের মধ্যে কিংবদন্তি গায়ক এন্ড্রু কিশোর সম্প্রতি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। তার শরীরে অ্যাড্রিনাল গ্রন্থিতে টিউমার ছিল যা পরে ক্যান্সারে পরিণত হয়।

এন্ড্রু কিশোরের স্ত্রী এবং গায়ক জাহাঙ্গীর সাঈদকে সাথে তিনি নিয়ে প্রাথমিক চেকআপের জন্য গত ৯ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে যান। তাদের প্রাথমিক পরিকল্পনা ছিল চেকআপ হওয়ার পরে তিন থেকে চার দিনের মধ্যে ঢাকায় ফিরে আসা। কিন্তু তাদের পরিকল্পনাটি তখন পরিবর্তন করতে হয়, সেখানকার চিকিৎসকরা জানান এন্ড্রু কিশোরকে ১৮টি কেমোথেরাপি দিতে হবে।

চিকিৎসার জন্যে অত্যন্ত ব্যয়বহুল কেমোথেরাপির খরচ জোগাতে তাঁর পরিবার হিমশিম খাচ্ছে। প্রধানপমন্ত্রী ইতোমধ্যে এই গুণী শিল্পীর পাশে দাঁড়িয়েছেন। এবার এন্ড্রু কিশোরের পাশে দাঁড়ালেন ব্যবসায়ী ও চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল ও তাঁর স্ত্রী বর্ষা। তাঁরা দুইজন দুইলাখ টাকা রবিবার (১ ডিসেম্বর) এন্ড্রু কিশোরের ছোট ভাইয়ের হাতে তুলে দিয়েছেন।

এন্ড্রু কিশোরের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে তার ছোট ভাই বলেন, এন্ড্রু কিশোরকে যে কেমোথেরাপি দেওয়া হচ্ছে তার প্রতিটির মূল্য প্রায় ৯ লাখ টাকা। আড়াই মাসে ১২টি কেমোথেরাপি দেয়া হয়েছে তাকে। এরইমধ্যে গুণী এই শিল্পীর চিকিৎসায় তার পরিবার কোটি টাকা খরচ করেছে। এখন তার অবস্থা কিছুটা উন্নতির দিকে।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর এন্ড্রু কিশোর ঢাকা থেকে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাসায় তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। স সময় তিনি তাঁর চিকিৎসার জন্য ১০ লক্ষ টাকার চেক অনুদান হিসেবে দেন। একটি বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেলও তার চিকিৎসার জন্য প্রায় সমপরিমান অর্থ সাহায্য করেন। তার চিকিৎসার খরচের তুলনায় অনুদানের পরিমাণ যথেষ্ট নয়। এই শিল্পী তার ভক্ত এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিকট তাঁর দু:সময়ে সাহায্য করার জন্য অনুরোধ করেন।

আমরা আশা করি, আমাদের দেশের এই কিংবদন্তি শিল্পী দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন।