অনেক সময় দেখা যায় বিয়ে করে ছেলে তার বউকে দেশে রেখে প্রবাসে চলে যান। এর কারণে প্রায় সময় দেখা যায় বউ অন্য কারো সাথে সম্পর্কে জড়ান। এছাড়া দেখা যায় ছেলে প্রবাসে যাওয়ার পর বউ তার পরিবারের সাথে থাকতে চায় না। অনেক সময় অন্যর হাত ধরে উধাও হয়ে যান। এছাড়া অনেক সময় নিখোঁজ হয়ে যান। এবার তেমনই একটা ঘটনা ঘটেছে। তবে প্রবাসীর স্ত্রী কারও সাথে চলে গেছে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়।
টাকা ভাংতি আনার কথা বলে এক গৃহবধূ তার মাকে নৌকা ঘাটে বসিয়ে সেই যে গেলেন আর ফিরে আসেনি। ঘন্টার পর ঘন্টা নৌকাঘাটে অপেক্ষা করে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও মেয়ের সন্ধান না পেয়ে অবশেষে চারদিন পর থানায় নিখোঁজ সাধারণ ডায়েরি করেছে মা মোছেনা বেগম। ঘটনাটি গত ২২ নভেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িযার নবীনগর সদর বাজারে ঘটেছে।

জানা যায়, নবীনগর উপজেলার উরখুলিয়া গ্রামের আইয়ুব মিয়ার কন্যা খাদিজা বেগমের সাথে একই উপজেলার দৃর্গারামপুর গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী মমিন মিয়ার ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে বিয়ে হয়। গত ৩ মার্চ সৌদি আরবে স্বামীর কাছে চলে যান খাদিজা বেগম। দীর্ঘ ৬ মাস স্বামীর সাথে সৌদি আরব থাকার পর ২৭ সেপ্টেম্বর দেশে ফেরেন তিনি।

গত ২২ নভেম্বর ডাক্তার দেখাতে নবীনগর এলে নবীনগর সদর বাজারের নৌকাঘাটে তার মা মোছেনা বেগমের সাথে দেখা হয়। ওই সময় টাকা ভাংতি আনার কথা বলে খাদিজা বেগম তার মাকে নৌকাঘাট বসিয়ে চলে যাওয়ার কয়েক ঘন্টা অতিবাহিত হওয়ার পরও, খাদিজা বেগম ফিরে না আসায় মা মোছেনা বেগম নবীনগর সদর বাজারে মেয়েকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন।

দিনভর তালাশ করেও মেয়ের কোন সন্ধান না পেয়ে তার শশুর বাড়িতে বাড়িতে খবর নিয়ে জানতে পারে সেখানেও সে যায়নি। কোন আত্বীয়-স্বজনদের বাড়িতেও যায়নি। নিখোঁজের চারদিন পার হয়ে গেলেও মেয়েকে না পেয়ে অবশেষে মঙ্গলবার থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

এ বিষয়ে খাদিজা বেগমের বড় জা শিউলী বেগম বলেন, আমাদের সংসারে কোন অশান্তি নেই। আমার শাশুরি আমাদেরকে মেয়ের মতো স্নেহ করেন। খাদিজা নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে আমার শাশুরি অসুস্থ হয়ে পরেছেন।

নবীনগর থানার ওসি তদন্ত রাজু আহম্মেদ সাধারণ ডায়েরির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি নিখোঁজ খাদিজা বেগমকে দ্রুত উদ্ধার করার জন্য।

এই ঘটনায় খাদিজা বেগমের গ্রামের লোকেরা বলেন, মেয়েটি অনেক ভালো ছিল। তারা আরও বলেন, সে কখনও ছেলেদের সাথে কথা বলতো না। তবে সে কোন বিপদে পরেছে কিনা তা দেখতে প্রশাসনের কাছে অনুরধ জানান তারা। এদিকে তাকে উদ্ধার করার চেষ্টা করছেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা।