করোনা ভাইরাসের কারণে সারা বিশ্ব বর্তমানে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এই করোনা ভাইরাস দেশে দেশে ছড়িয়ে পড়ারার সাথে সাথে অনেক দেশ এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করার চেষ্টা করছে। আর সেই অনুযায়ী বিশ্বের বেশ কিছু দেশ ইতিমধ্যে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। তবে এই ভ্যাকসিন নিয়ে এখনো অনেক পরীক্ষা-নীরিক্ষা চলছে। এদিকে, চীন বলছে তারা করোনা ভাইরাসের জন্য একটি ভ্যাকসিন তৈরি করেছে আর এই ভ্যাকসিন তারা পরীক্ষা করে দেখেছে। চীনের চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা তাদের তৈরি করা ভ্যাকসিন নিয়ে বেশ আশাবাদি। আর এবার এই ভ্যাকসিন সম্পর্কে কথা বলেছেনে দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি রাষ্ট্র এই ভাইরাস ছড়ানোর জন্য চীনকে দায়ী করে আসছে। এতে বেশ চাপেই রয়েছে বেইজিং। এর মধ্যে আশার বাণী শোনালেন দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

তিনি সোমবার জাতিসংঘের স্বাস্থ্যবিষয়ক বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) অনলাইন অধিবেশনে অংশ নিয়ে একে ঘোষণা বলেন, করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন চীন তৈরি করতে পারলে তা বিশ্বের জনসাধারণের মঙ্গলের জন্য সবাইকে দেয়া হবে। বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্যও এই ভ্যাকসিন সহজলভ্য করা এবং ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখার ব্যবস্থা নেবে চীন।

উল্লেখ্য, অনেক দেশেই জোর গবেষণা চলছে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের। চীনে করোনার সম্ভাব্য পাঁচটি ভ্যাকসিন ট্রায়ালে রয়েছে। এর আগে গত সপ্তাহে চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের উপপরিচালক জেং ইয়াইসিন বলেন, আরও বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন পাইপলাইনে আছে। এই ভ্যাকসিনগুলো মানবদেহে ট্রায়ালের অপেক্ষায় রয়েছে। সূত্র: এএফপি, রয়টার্স।

এদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। আর এ কারণে এই ভাইরাস ঠেকানোর জন্য দেশে দেশে এখনো লকডাউন চলছে। তবে প্রথম থেকে বিশ্বের বেশ কিছু দেশ চীনকে দোষারোপ করছে। অনেক দেশ প্রথম থেকে বলছে চীন প্রথম দিকে অনেক তথ্য লুকিয়েছে। আর এ জন্য বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু এই কথা মানতে নারাজ চীন। তারা বলছে আমরা কোনো তথ্য লুকাইনি। প্রথম থেকে বিশ্ববাসীকে সঠিক তথ্য দেওয়া হয়েছে। আর এবার চীন বলছে তারা করোনার ভ্যাকসিন বিশ্বের অন্যান্য দেশে দিবে।
চাপে চীন, এবার আশার বাণী শোনালেন শি জিনপিং
Logo
Print

আন্তজার্তিক

 

করোনা ভাইরাসের কারণে সারা বিশ্ব বর্তমানে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এই করোনা ভাইরাস দেশে দেশে ছড়িয়ে পড়ারার সাথে সাথে অনেক দেশ এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করার চেষ্টা করছে। আর সেই অনুযায়ী বিশ্বের বেশ কিছু দেশ ইতিমধ্যে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। তবে এই ভ্যাকসিন নিয়ে এখনো অনেক পরীক্ষা-নীরিক্ষা চলছে। এদিকে, চীন বলছে তারা করোনা ভাইরাসের জন্য একটি ভ্যাকসিন তৈরি করেছে আর এই ভ্যাকসিন তারা পরীক্ষা করে দেখেছে। চীনের চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা তাদের তৈরি করা ভ্যাকসিন নিয়ে বেশ আশাবাদি। আর এবার এই ভ্যাকসিন সম্পর্কে কথা বলেছেনে দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি রাষ্ট্র এই ভাইরাস ছড়ানোর জন্য চীনকে দায়ী করে আসছে। এতে বেশ চাপেই রয়েছে বেইজিং। এর মধ্যে আশার বাণী শোনালেন দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

তিনি সোমবার জাতিসংঘের স্বাস্থ্যবিষয়ক বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) অনলাইন অধিবেশনে অংশ নিয়ে একে ঘোষণা বলেন, করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন চীন তৈরি করতে পারলে তা বিশ্বের জনসাধারণের মঙ্গলের জন্য সবাইকে দেয়া হবে। বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্যও এই ভ্যাকসিন সহজলভ্য করা এবং ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখার ব্যবস্থা নেবে চীন।

উল্লেখ্য, অনেক দেশেই জোর গবেষণা চলছে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের। চীনে করোনার সম্ভাব্য পাঁচটি ভ্যাকসিন ট্রায়ালে রয়েছে। এর আগে গত সপ্তাহে চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের উপপরিচালক জেং ইয়াইসিন বলেন, আরও বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন পাইপলাইনে আছে। এই ভ্যাকসিনগুলো মানবদেহে ট্রায়ালের অপেক্ষায় রয়েছে। সূত্র: এএফপি, রয়টার্স।

এদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। আর এ কারণে এই ভাইরাস ঠেকানোর জন্য দেশে দেশে এখনো লকডাউন চলছে। তবে প্রথম থেকে বিশ্বের বেশ কিছু দেশ চীনকে দোষারোপ করছে। অনেক দেশ প্রথম থেকে বলছে চীন প্রথম দিকে অনেক তথ্য লুকিয়েছে। আর এ জন্য বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু এই কথা মানতে নারাজ চীন। তারা বলছে আমরা কোনো তথ্য লুকাইনি। প্রথম থেকে বিশ্ববাসীকে সঠিক তথ্য দেওয়া হয়েছে। আর এবার চীন বলছে তারা করোনার ভ্যাকসিন বিশ্বের অন্যান্য দেশে দিবে।
Template Design © Joomla Templates | GavickPro. All rights reserved.